Skip to content Skip to footer

মোঃ পারভেজ সজীব

আত্মনির্ভরশীল কর্মঠ ও যুবসমাজ বিনির্মাণের বদ্ধপরিকর-পারভেজ

মোহাম্মদ পারভেজ সজীব, ১৯৮৮ সালের ৪ঠা জানুয়ারি নোয়াখালী জেলার চাটখিল থানার ছয়ানি টবগাঁ গ্রামে জন্ম হয়। বাবা ছিলেন একজন সরকারি চাকরিজীবী মা গৃহিনী দুই বোন এক ভাই এর মধ্যে পারভেজ সবার বড়। বাবার চাকুরির সুবাধে ঢাকার পুরাতন বিমানবন্দর সিভিল এভিয়েশন উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষাজীবন শুরু করেন।
ছোটবেলা থেকে বাবার গৎবাঁধা জীবন দেখে চাকরির প্রতি এক ধরনের ভীতি কাজ করতো, জীবনের স্বাধীনতা খুঁজতে গিয়ে ব্যবসার প্রতি এক অজানা ভালোলাগা কাজ করতে শুরু করলো তাইতো একাদশ শ্রেণীতে পড়া অবস্থায় ২০০৩ সালে প্রথম উদ্যোক্তা খাতায় নাম লিখেন। অপরিপক্ক জ্ঞান আর এলোমেলো পরিকল্পনায় অল্প সময়ে মুখ থুবড়ে পড়তে হয়। অল্প পুঁজি নিয়ে শুরু করায় এবারের মতো হাঁফ ছেড়ে বাঁচলেও, উদ্যোক্তা হওয়ার নেশায় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর শেষ করে চাকরির পাশাপাশি ২০১৬ সালে আবারও উদ্যোক্তা হওয়ার চেষ্টা শুরু করেন।
এবার যথানিয়মে প্রশিক্ষণ ও অভিজ্ঞতা নিয়ে শুরু করেন পারভেজ। ন্যাশনাল টুরিজম এন্ড ট্রেনিং ইনস্টিটিউট এর বেকারী এন্ড পেষ্টী ডিপার্টমেন্ট থেকে NTVQF লেভেল ১ & ২ শেষ করে চাকরি নেন হোটেল অবকাশে। সেখান থেকে কর্ম অভিজ্ঞতা অর্জন এবং পাশাপাশি বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের ইন্ডাস্ট্রিয়াল এসে্সর (assessor) হিসেবে কাজ করেন।
২০১৯ সালে শুরু করেন OVEN KING নামের একটি বেকারি ও কনফেকশনারি উৎপাদন এবং বিক্রয়কারী প্রতিষ্ঠান। প্রাথমিক অবস্থায় ১ লক্ষ টাকা পুজি নিয়ে শুরু করে বর্তমানে প্রায় ২০ লক্ষ টাকা মূলধন ও পূর্ণকালীন ৭ জন কর্মী নিয়ে চলছে OVEN KING এর কার্যক্রম।
ব্যবসা করতে গিয়ে যে সমস্যা গুলো চিহ্নিত করেছেন পারভেজ স্থান, পণ্য, প্রাইজ, প্রমোশন এবং সেই সাথে দক্ষ কর্মী নির্বাচন করা। তিনি বললেন প্রশিক্ষণ ছাড়া ব্যবসার নেটওয়ার্ক বৃদ্ধি, হিসাব-নিকাশ ও অনলাইনে ব্যবসার সম্প্রসারন সম্ভব নয়।
২০২০ সালে করোনা মহামারীতে যখন সারা পৃথিবী স্তব্ধ উদ্যোক্তারা যখন অন্ধকার আর অনিশ্চয়তায় নিমজ্জিত তখন B’Yeah সহায়তায় আবারও স্বপ্ন দেখেন পারভেজ। তারই ধারাবাহিকতায় করানোর কালীন ব্যবসায়িক পরিকল্পনা, প্রোডাক্ট ডেভেলপমেন্ট, ডিজিটাল মার্কেটিং এবং ডিসেন্ট ওয়ার্ক এর মত গুরুত্বপূর্ণ প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে নতুন ভাবে উজ্জীবিত হয়ে প্রাণবন্ত হয় ওভেন কিং এর কার্যক্রম।
বি’ইয়া প্রশিক্ষন শেষ করেই একজন পর্রামশদাতা (মেন্টর) এর সাথে গ্রুপের মাধ্যমে যুক্ত করে দেন। খাবার এর গুনগত মান ঠিক রাখা, বেকারি ও কনফেকশনারির উপর আরো ভাল প্রশিক্ষন, যেহেতু খাবার প্রতিষ্ঠান, কর্মী ও দোকান এর পরিস্কার পরিচ্ছনতার উপর বিশেষ গুরুত্ব দিতে পর্রামশ দেন।
মোহাম্মদ পারভেজ সজীব, একজন ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা হিসাবে ভবিষ্যতে ঢাকাসহ সারা বাংলাদেশের বিভাগীয় জেলাগুলোতে ’’ওভেন কি‘’ সহস্রাধিক কর্মীর তৈরি পণ্য ভোক্তাদের নিরাপদ খাদ্য চাহিদা পূরণ করে একটি আত্মনির্ভরশীল কর্মঠ ও যুবসমাজ বিনির্মাণের সহায়তায় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

Leave a comment